আপনি কি পেপাল একাউন্ট নিয়ে চিন্তিত

/
/
/
15 Views

“আপনি কি পেপাল একাউন্ট নিয়ে চিন্তিত’’ ❓

‘’আপনি জানেন’’ ❓

আপনি যে USA এর মিথ্যা তথ্য সম্বলিত পেপাল একাউন্ট ব্যবহার করছেন যার কারণে আপনার একাউন্ট কোনো কারণে লিমিট হয়ে গেলে আপনি আর কখনোই আপনার পেপাল ডলার এবং পেপাল একাউন্ট ফেরত পাবেন না।

‘’এছাড়া’’

বর্তমানে বেশীরভাগ ফ্রিলান্সারদের মাঝে আপ-ওয়ার্ক , ফাইভার, বা ফ্রিলান্সার নামক মার্কেটপ্লেসগুলোর বাইরে থেকে পেমেন্ট নেওয়ার একটা প্রবণতা তৈরি হয়েছে ,

এর একটি কারন, মার্কেটপ্লেসগুলোতে প্রচুর কম্পিটিশিন এবং তাদের কমিশন ।
তাছাড়া, কোন কারন বা নোটিশ ছাড়া একাউন্ট ব্যান , ডলার আটকে রাখা

এমন নানা কারনে অনেক ফ্রিলান্সার এখন মার্কেটপ্লেস এর বাইরে থেকে পেমেন্ট নেওয়াতে যথেষ্ট আগ্রহী ।

আর দিন দিন ইন্ডিপেন্ডেন্ট ওয়ার্কার বা টিম ভিত্তিক ছোট আকারে অফিস দিয়ে বিজনেস করার প্রক্রিয়া বেড়ে চলছে !

শুধুমাএ একটা কারনে তাদের এই প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্থ হচ্ছে আর তা হচ্ছে পেপাল এর অফিসিয়াল পেমেন্ট সিস্টেম বাংলাদেশ এ না থাকা ।

যেহেতু ,অফিশিয়াল কোন সাপোর্ট ‘’পেপাল’’ বাংলাদেশ এ রাখে নাই তাই ফ্রিলান্সারা’রা বাধ্য হয়েই ইউএস , ডুবাই, সাইপ্রাস , বা অন্যান্য কান্ট্রি থেকে ফেক আইডিন্ডিটির মাধ্যমে পেপাল আকাউন্ট খুলছে ।

‘’আর এই কারনেই শত শত ফেক পেপাল একাউন্ট বাংলাদেশ থেকে প্রতিনিয়ত লিমিট/ সাসপেন্ড হচ্ছে’’

”সো ফেক ইউএস , বা অন্যান্য আইডিন্ডিটি আপনার যতটা সন্দেহজনক , আপনার পরিশ্রমের ডলার হারানোর বিপজ্জনক ততটা”

তাহলে সমাধান কি❓

একটাই ! অথেন্টিক পেপাল একাউন্ট খোলা ! নিজের নামে আপনার একাউন্ট ডিটেইলস এর সত্যায়িত কপি রাখা !

সেইক্ষেত্রে আমরা আপনাকে মালয়েশিয়ান ভিসা কার্ড ভেরিফাইড পেপাল একাউন্ট ব্যবহার করতে বলবো।

‘’কারন’’

আপনার একাউন্ট লিমিট হয়ে গেলেও আপনার পেপাল ডলার আপনার ভিসা কার্ড এর মাধ্যমে বাংলাদেশের যেকোনো ব্যাংক এবং বিকাশ এ ট্রান্সফার করে দিতে পারবেন।

এ ছাড়া বিসনেস পেপাল একাউন্ট টি আপনার পাসপোর্ট এর আন্ডারে হওয়ায় আপনি আপিল করতে পারবেন একাউন্ট টি সচল করার জন্য।

মোটকথা আপনি ১০০% অরজিনাল নিজের ব্যাক্তিগত তথ্য দিয়ে ভেরিফাইড পেপাল একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন, সেটা বাংলাদেশ থেকেই ।

সাথে পাচ্ছেন পেপাল থেকে বাংলাদেশ এ রেমিটেন্স আনার সবচেয়ে ”দ্রুততম” সমাধান ইন্টারন্যাশনাল ভিসা কার্ড !

যেটা দিয়ে আপনি আপনার পেপাল একাউন্ট ভেরিফাইড করতে পারবেন + সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে বাংলাদেশ এ ডলার বিকাশ এ ট্রান্সফার করতে পারবেন ।

অথবা ভিসা সমর্থিত ATM থেকে টাকা ওয়িথড্র করতে পারবেন ।

👉🏽 এক নজরে ইন্টারন্যাশনাল ভিসা কার্ড এর সুবিধাগুলো :

✅ একটি ইন্টারন্যাশনাল ভিসা কার্ড পাবেন যার মাধ্যমে পেপাল থেকে আপনার আয়কৃত রেমিটেন্স সরাসরি আপনার বিকাশ এ নিয়ে আনতে পারবেন সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে !

✅ ভিসা কার্ডটি আপনার পেপ্যাল একাউন্ট এর সাথে কানেক্ট করা থাকবে এবং ভেরিফাই করা
থাকবে।

✅ এই ভিসা কার্ড এর সকল লেনদেন মোবাইল এপ্স এর মাধ্যমে পরিচালনা করতে পারবেন।

✅ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড (OTP) ম্যানেজমেন্ট এর জন্য একটি মালয়েশিয়ান রোমিং সিম দেয়া হবে (যে কোনো দেশে নেটওয়ার্ক এ সচল থাকবে)

✅ আপনার পেপাল একাউন্ট , ভিসা কার্ড একাউন্ট এবং সিম কার্ড আপনার পাসপোর্ট এবং আপনার ইমেইল একাউন্ট এর অধীনে থাকবে।

✅ পেপাল একাউন্ট থেকে ডলার ভিসা কার্ড এ উইথড্র করে বাংলাদেশের যেকোনো ব্যাংক এবং বিকাশ এ ট্রান্সফারকরে ক্যাশ করতে পারবেন।

✅ পেপ্যাল বিসনেস একাউন্ট এর মাধ্যমে ইনভয়েস তৈরী করে কাস্টোমার থেকে পেমেন্ট রিসিভ করতে পারবেন।

✅ ভিসা কার্ড, সিম কার্ড এবং ইমেইল আপনার নিয়ন্ত্রণে থাকার কারণে যে কোনো ধরণের ভেরিফিকেশন অথবা অনাখাঙ্খিত সমস্যা আপনি নিজেই সমাধান করতে পারবেন।

‘’মনে রাখবেন ,

✔️ আমরা এমন এক অথেনটিক পেপাল এর সল্যুশন দিচ্ছি যার মাধ্যমে আপনি আপনার নামে, আপনার পাসপোর্ট দিয়ে একটি অফিশিয়াল পেপাল এর পেমেন্ট সল্যুশন পাচ্ছেন ,

”যে পেপাল-টি এশিয়ার ভিতর সবচেয়ে বেষ্ট , এবং বাংলাদেশীদের জন্য সর্বোচ্চভাবে গ্রহন যোগ্য”

✔️ আমাদের পেপাল পেমেন্ট সল্যুশনটার সাথে পাচ্ছেন একটা ইন্টারন্যশনাল ভিসা কার্ড এর ব্যাবহারের সুবিধা যার মাধ্যমে ,

আপনি আপনার পেপাল ভেরিফিকেশন, ফিউচার ডকুমেন্ট প্রুফ এর নিশ্চয়টা সহ , এই কার্ড দিয়ে আপনি ফেইসবুক বুস্টিং, ইন্টারন্যশনাল যেকোন অনলাইন শপিং থেকে কেনাকাটা , পেমেন্ট ডিপোজিট সহ একটা পরিপূর্ণ ভিসা কার্ড এর ফ্যাসিলিটি পাচ্ছেন !

আর এই ভিসা কার্ড এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, আপনি পেপাল থেকে এই কার্ড এর মাধ্যমে বাংলাদেশ এ আপনার পেপাল এর রেমিটেন্ট খুব দ্রুত আনতে পারবেন , জাস্ট কয়েক মিনিট এ

যেটা পূর্বে পেওনিয়ার দিয়ে করতে গেলে আপনার টাইম লাগতো ৩-৭ দিন ।

”এতটা ইন্সটান্ট সল্যুশন আপনি পাবেন কি না । একটু খুজে দেখবেন” !

✔️ আমাদের এককালীন পেমেন্ট এর পর আমাদের কোন হিডেন চার্জ নেই ! না আছে VPS বা অন্য সার্ভার ভাড়া নিয়ে পেপাল লগিন এর জন্য মাসিক এক্সটা চার্জ !

✔️ ভেরিফিকেশন সংক্রান্ত সমস্যায় আমাদের অফিশিয়াল সাপোর্ট পাচ্ছেন মালয়েশিয়া থেকে , পাবেন সব ধরনের কনসালটেন্সি এবং গাইডলাইন ।

✔️ আর আমাদের এই পেপাল সল্যুশনটা বাংলাদেশে প্রথম !

তাই একটা কথা গ্যারান্টেড বলতে পারি, আমাদের মালয়েশিয়ান পেপাল সার্ভিস, বাংলাদেশের যেকোন ইউএস ফেক পেপাল সার্ভিস থেকে ১০০% একুরেট, অথোরাইজড এবং বেটার !!

☑️আমাদের কমপ্লিট প্যাকেজ এ যা যা থাকছে

✔️ ১ টি মালয়েশিয়ান বিজনেস পেপাল একাউন্ট
✔️ ১ টি ইন্টারন্যাশনাল ভিসা কার্ড
✔️ ১ টি মালয়েশিয়ান রোমিং সিম কার্ড
✔️ ১ টি মালয়েশিয়ান বা সিঙ্গাপুর ভিপিএন
✔️ ১০ রিঙ্গিট ভিসা কার্ড লোড
✔️ ১০ রিঙ্গিত পেপাল লোড
✔️ ১০ রিঙ্গিট সিম কার্ড লোড

মূল্য : ৬৭০০ টাকা ( ৩০ রিঙ্গিট লোড সহ)

ক্যাশ অন ডেলিভারি ( কোন ডেলিভারি চার্জ নেই )

* অবশ্যই পাসপোর্ট থাকতে হবে*
বিস্তারিত : 01716988953 / 01760432660

  • Facebook
  • Twitter
  • Google+
  • Linkedin
  • Pinterest

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

It is main inner container footer text